1. pressmedia24@yahoo.com : pressmedia24 :
  2. sujitpauldhaka@gmail.com : sujitdhaka :
বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ০৮:৩৫ পূর্বাহ্ন

নবাবগঞ্জে সড়কের মাঝখানে ৩ বৈদ্যুতিক খুঁটি!

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
  • Update Time : বুধবার, ২ জুন, ২০২১
  • ৫৬ Time View

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় একটি ইউনিয়নের এক গ্রামের ভিতরের সড়কের মাঝখানে পরপর তিনটি বৈদ্যুতিক খুঁটি সরানোর বিষয়ে দুইবার লিখিত আবেদন করলেও এর কোনো প্রতিকার পায়নি এলাকাবাসী।

দীর্ঘ ৮ বছরে আগে উপজেলার বক্সনগর ইউনিয়নের বর্ধনপাড়া পিকেবি উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন গ্রাম্য সড়ক থেকে দাসপাড়া পর্যন্ত সড়কে ঠিক মাঝখানে পরপর একাধিক বৈদ্যুতিক খুঁটি স্থাপন করা হয়।

এলাকাবাসীর পক্ষে চারটি খুঁটি স্থানান্তরের জন্য গত বছরের ২৫ নভেম্বর ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এবং এ বছরের ২১শে এপ্রিল ওই গ্রামের বাসিন্দা ও ২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ঢাকা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর জেনারেল ম্যানেজার বরাবর দুটি লিখিত আবেদন করলেও কোনো ফলাফল পায়নি তারা।

ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের আবেদনে ২৩৩-৯-এ, ২৩৩-১২-এ, ২৩৩-১২-এ২, ২২২-১২-এ৩ নং এর চারটি বৈদ্যুতিক খুঁটি সড়কের মাঝে থাকায় সেগুলো স্থানান্তরের জন্য আবেদন জানানো হয়।

বর্তমানে ওই গ্রাম্য সড়কটি নতুন করে সংস্কার করা হচ্ছে। সংস্কার কাজের আগেও সরানো হয়নি খুঁটিগুলো।

সড়কের মাঝে এ খুঁটিগুলো থাকার কারণে ওই সড়ক দিয়ে যান চলাচল প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছে বর্ধনপাড়া পিকেবি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে দাসপাড়া পর্যন্ত চলাচল করা শিক্ষার্থীসহ অসংখ্য শ্রেণি পেশার মানুষ।

স্থানীয় অটোরিক্সা চালক আ: আজিজ বলেন, স্থানীয় মেম্বারের বাড়ির ও আক্তার আলী স্মৃতি সংঘের পাশের সড়কে পরপর তিনটি বৈদ্যুতিক খুঁটি রাস্তার ঠিক মাঝখানে থাকায় আমাদের অটোরিকশা নিয়ে চলাচল করা সম্ভব হয়না। এমনকি জরুরী মুহূর্তে রোগী নিয়েও চলাচল করতে অনেক অসুবিধায় পড়তে হয়। এখন আবার সড়কের পাশের ডোবা ভরাট করা হয়েছে। কিছুদিন আগেও কারেন্টের খাম পাশ কাটিয়ে যাবার সময় এক অটো চালক অটো রিক্সা নিয়ে পাশের খাদে পড়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়।

স্থানীয় বাসিন্দা আনোয়ার খন্দকার বলেন, রাস্তার মাঝে বিদ্যুতের খুঁটি বসানো এটা কেমন ধরণের কাজ? পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের লোক দেখলেই আমিসহ এলাকার মানুষ বহুবার বলেছি খুঁটি সরাতে। এখন একটা দুর্ঘটনা ঘটলে কে এর দায় নেবে?

২ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো: আক্কাস আলী বলেন, এলাকাবাসীর পক্ষে আমাদের চেয়ারম্যান এবং আমি পল্লীবিদ্যুৎ অফিসে খুঁটিগুলো স্থানান্তরের জন্য লিখিতভাবে অভিযোগ দিয়েছি। বিষয়টি নিয়ে আমি একাধিকবার পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে গিয়েও কোন প্রতিকার পায়নি। সেখানে থেকে খুঁটিগুলো সরানো বাবদ ফি জমা দিতে বলা হয়েছে।

এটা তো সরকারি রাস্তা। তার মাঝে পল্লী বিদ্যুতের খুঁটি। আমরা জনস্বার্থে আবেদন দিয়েছি। এ জন্য ফি জমা দিতে হবে কেনো বুঝলাম না। এটা তো কোনো ব্যাক্তিগত বিষয় না যে খুঁটি সরানোর জন্য ফি জমা দিতে হবে।

আমার ওয়ার্ডের জনগন দীর্ঘদিন ধরে এই সমস্যা ভোগ করে আসছে। এই রাস্তা নতুন করে কার্পেটিং করা হচ্ছে।

তাই আমাদের দাবি রাস্তার কাজ শেষ হবার আগেই পল্লী বিদ্যুৎ বৈদ্যুতিক খুঁটি স্থানান্তর করে জনসাধারণের চলাচলের পথ করে দিক বলেন আক্কাস আলী।

 

এ বিষয়ে ওই ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াদুদ মিয়া বলেন, এলাকাবাসীর পক্ষে আমি লিখিতভাবে ঢাকা পল্লী বিদ্যুৎ-২ অফিসকে বিষয়টি জানিয়েছি। এর পাঁচ মাস অতিবাহিত হয়ে গেলেও কোন প্রতিকার পাইনি।

এ বিষয়ে ঢাকা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর জেনারেল ম্যানেজার মোঃ মজিবুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আবেদনের প্রেক্ষিতে ডিমান্ড নোট দেওয়া হয়েছে। খুঁটি স্থানান্তরের জন্য আবেদনকারী নিয়ম অনুযায়ী টাকা জমা দিলেই কাজ করে দেওয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

More News Of This Category

হাইলাইটস

পুরোনো সংবাদ পড়ুন

জুন ২০২১
সোম মঙ্গল বুধ বৃহঃ শুক্র শনি রবি
« মে    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  

ভিডিও গ্যালারি