1. pressmedia24@yahoo.com : pressmedia24 :
  2. sujitpauldhaka@gmail.com : sujitdhaka :
বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ০৭:৩৩ পূর্বাহ্ন

নবাবগঞ্জে নারীকে কুপিয়ে হত্যা, মেয়েসহ গ্রেপ্তার আরও ২

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ১০৮ Time View

প্রধান প্রতিবেদক,প্রেসমিডিয়া টোয়েন্টিফোর ডটকম

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় আশ্রয়ণ প্রকল্পের বাসিন্দা এক নারীকে তার নিজের মেয়ে দুই সহযোগী বন্ধুকে সঙ্গে নিয়েই হত্যা করেছে। তাদেরকে মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হলে তারা আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আদালত থেকে লিখিত কাগজপত্র পাওয়ার পর রোববার দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন নবাবগঞ্জ থানার গালিমপুর তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক আবদুর রাশিদ। উপজেলার আগলা ইউনিয়নের চরচরিয়া চান্দার ট্যাক আঞ্চলিক সড়ক থেকে গত সোমবার সকালে চরমধুচরিয়া আশ্রয়ন প্রকল্পের বাসিন্দা ডালিয়া বেগমের (৫০) লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তার স্বামীর নাম শহিদ। দ্বিতীয় বিবাহ করে অন্যত্র থাকেন তিনি। গ্রেপ্তাররা হলেন- নিহতের মেয়ে ভাবনী আক্তার মিনু (১৯), তার সহযোগী দুুই বন্ধু তুহিন (২১) ও ওয়াতি (১৮)। পরিদর্শক আবদুর রাশিদ প্রেসমিডিয়া টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, নিহতের মেয়ের তথ্যের ভিত্তিতে ওই সড়ক থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। নিহতের মাথায় গুরুতর আঘাতের জখম ও ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেলে এটি একটি হত্যাকান্ড বলে আমরা ধারণা করে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করি। পরে নিহতের ছেলে রাজিব বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করলে পুলিশ এ হত্যাকান্ডের তদন্ত শুরু করলে হত্যার সঙ্গে নিহতের মেয়ে ও তার সহযোগী দুই বন্ধু জড়িত বলে সন্দেহ হলে পুলিশ তাদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে নিহতের মেয়ে মিনু পুলিশকে জানায় পূর্ব শত্রুতার জেরে আশ্রয়ণ প্রকল্পের প্রতিবেশী তার ফুফাতো বোন চাঁদনীর সঙ্গে রোববার রাত সাড়ে ৯টার দিকে তার ঝগড়া হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে প্রথমে তার বোন লাঠী দিয়ে তার মাথায় আঘাত করে। পরে প্রতিবেশী ঝুমুর ও ফারুক তাকে মারধর করেন। এ ব্যাপারে বিচারের দাবি করে নালিশ জানাতে রাত ১১টার দিকে মিনু তার ওই দুই সহযোগী বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে স্থানীয় ৭নং ওয়ার্ড মেম্বার খলিলের বাড়িতে রওনা দিলে তার মাও তাদের সঙ্গে যায়। রাত অনেক হয়ে যাওয়ায় মেম্বার সকালে বিচার করবেন বলে আশস্ত করলে ফের তারা আশ্রয়ণ প্রকল্পের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। পথে তুহিন মিনুকে বিয়ে করবেন বলে ডালিয়াকে জানালে তিনি রাজি না হয়ে রেগে ক্ষিপ্ত হয়ে তুহিনকে বিভিন্ন ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকলে প্রথমে মিনু তার মায়ের মাথায় পেছন থেকে ইট দিয়ে আঘাত করে। পরে তুহিন তার সঙ্গে থাকা ধারালো ছুরি দিয়ে তাকে কুপিয়ে হত্যা করে। পরিদর্শক রাশিদ আরও বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা দুই ধাপে পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিলে মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে প্রথমে মিনু ও ওয়াতিকে এবং পরে তুহিনকে আদালতে পাঠালে তারা সকলে ১৬৪ ধারায় স¦ীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিলে আদালত তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

পিএম-১০৩/১০৭

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

More News Of This Category

হাইলাইটস

পুরোনো সংবাদ পড়ুন

সেপ্টেম্বর ২০২১
সোম মঙ্গল বুধ বৃহঃ শুক্র শনি রবি
« জুন    
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০  

ভিডিও গ্যালারি